2020 Start Blogging | Make Money Online

2020 Start Blogging | Make Money Online

আসসালামুয়ালাইকুম আমি থাকি জাহিদ বাংলাদেশের পক্ষ থেকে আপনাদের সবাইকে স্বাগতম আজকে আমাদের প্রফেশনাল ব্লগিং করতে দ্বিতীয় পর্ব আজকে আমাদের এই পর্বটি হচ্ছে ব্লগিং শুরু করার পরিকল্পনা নিয়ে তাহলে চলুন দেখে নেই আমাদের এই পর্বে কি কি বিষয় থাকছে এই পর্বে থাকছে টাইপস অফ ইন্টারেস্ট অফ সম্পর্কে জেনে নেই শত শত প্রকার রয়েছে তার মধ্যে আমি এখানে কয়েকটি নাম উল্লেখ করব এবং সেগুলোর ব্যাখ্যা দেওয়ার চেষ্টা করব যেমন নিউজ অনলাইন ঘড়ি নেকলেস কসমেটিক ইত্যাদি

2020 Start Blogging | Make Money Online

2020 Start Blogging | Make Money Online
2020 Start Blogging | Make Money Online 

জিনিসপত্র নিয়ে লেখালেখি করা হচ্ছে বিভিন্ন ধরনের খাবারের রেসিপি কিভাবে তৈরি করতে হয় সেগুলো নিয়ে লেখালেখি করা অথবা সম্পর্কে জানলাম এখন আমরা জানবো এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটা বিষয় যেমন ইন্টারেস্ট আছে সর্বপ্রথম আপনাকে খুঁজে বের করতে হবে এতে কি হবে আপনি যদি আপনার ইন্টারেস্ট আছে আপনি যদি সেই বিষয় নিয়ে লেখালেখি করেন তাহলে খুব ভালো লেখালেখি করতে পারবেন এবং আপনি ওই কাজটা করতে আপনি বোরিং ফিল করবেন না সেজন্য সর্বপ্রথম চেষ্টা করবেন আপনার কোন বিষয়ের প্রতি ইন্টারেস্ট আছে সেটা খুঁজে বের করা যেমন আমি আমার ইন্টারেস্ট টা মেক মানি অনলাইন ব্লগের প্রকারভেদ খুজে পেয়েছি সিলেক্ট করা মানে আমি কোন বিষয়ের উপর ব্লগিং করবো এখানে সিলেক্ট করার ক্ষেত্রে সর্বপ্রথম আপনাকে যে বিষয়ের উপর নজর দিতে হবে সেটা হচ্ছে আপনি যে বিষয়ের উপর ব্লগিং করবেন সেই বিষয়ের মার্কেটে পপুলারিটি কেমন ইন্টারনেটে সার্চ করছে সেটা আপনাকে লক্ষ্য রাখতে হবে কেননা যদি ধরুন আপনি এমন একটা টপিক নিয়ে লেখালেখি করলে যেটা গুগোল সার্চ করে না বা কেউ খুঁজে না কারো প্রয়োজন হয় না তাহলে কেউ আপনার ব্লগ বা আপনি যে বিষয়গুলো লিখবেন সেগুলো দেখবে না আর কেউ যখন না দেখবে তখন আপনার কোন ইনকাম আসবে না এই জিনিসটা মাথায় রাখতে হবে নিশ্চিত করার ক্ষেত্রে অনলাইনে অনলাইনে টাকা ইনকাম করার মাধ্যমে পেয়ে থাকেন freelancer.com কি করি কোন একটা বাইরে ওয়েবসাইট তৈরি করে দেই অথবা কারো ডিজিটাল মার্কেটিং এর প্রয়োজন হচ্ছে আমরা সে সম্পর্কে সার্ভিস দিয়ে থাকে এবং ওই সার্ভিস এর বিনিময়ে আমরা নির্দিষ্ট একটা পেমেন্ট পেয়ে থাকি এখানে একটা বিষয় লক্ষ্য রাখবেন একটিভ ইনকাম হচ্ছে যতক্ষণ আপনি কাজ করবেন বাজে প্রোডাক্টটা আপনি করবেন প্রোডাক্টের বিনিময় নির্দিষ্ট একটা সময় আপনি পেমেন্ট পাবেন এর পরবর্তীতে আপনি পেমেন্ট পাবেন তুমি যখন আপনি কাজ করবেন না তখন আপনি পেমেন্ট পাবেন না এটা হচ্ছে অ্যাক্টিভ ইনকাম তারপর হচ্ছে প্যাসিভ ইনকাম ইনকাম হচ্ছে যেমন মার্কেটিং ইউটিউবিং এখন আপনি বলতে পারেন যে ব্লগে সিলেট মার্কেটিং ইউটিউব কেন প্যাসিভ ইনকাম কিভাবে ইনকাম হয় এখানে আমি আপনাকে সেটা হচ্ছে আমি ব্লগিং করার ফলে আমি আমার ওয়েবসাইটটিতে বিভিন্ন প্রকার আর্টিকেল লিখতে বিভিন্ন বিষয় সম্পর্কে পড়তে থাকবে আমার কিন্তু অটোমেটিক্যালি একটা আর্নিং জেনারেট হবে এটা যে আপনি কাজ করার পরেও কিন্তু আপনারা নিতে হবে যেটা অ্যাক্টিভ ইনকমে এ ক্ষেত্রে হচ্ছে না এটা হচ্ছে এবং একটি ইনকাম এর মধ্যে পার্থক্য আমি আরেকটা উদাহরণ দিচ্ছি আপনাকে তাকে বিষয়টা আরেকটু ক্লিয়ার হবে ধরুন আপনি একজন লেখক 24 ঘন্টা পরিশ্রম করে একটি বই লিখলেন বই পাবলিশ করতে হলে আপনাকে অবশ্যই একটি প্রকাশনীতে যেতে হবে এবং প্রবাসে যাওয়ার পর প্রিন্ট করবেন এজন্য আপনাকে তাদেরকে একটা নির্দিষ্ট পেমেন্ট দিতে হবে ওইটা হচ্ছে তাদের একটি বিন কা'ব এবং প্রকাশনী থেকে পাবলিস্ট হওয়ার পর আপনি দেখতে পাবেন সেটা হচ্ছে আপনার প্যাসিভ ইনকাম আশাকরি আপনাদের একটি ইনকামিং কিছু পার্থক্য দেখে নেই অ্যাক্টিভ ইনকাম করার জন্য আপনাকে আগে থেকে নির্দিষ্ট একটা জরুরী ক্ষেত্রে ইনকাম করার জন্য আপনাকে আগে থেকে নির্দিষ্ট কোন বিষয়ের ক্ষেত্রে এখানে আপনি যতক্ষণ কাজ করবেন শুধুমাত্র নির্দিষ্ট কাজের জন্য পেমেন্ট পাবেন ক্ষেত্রে এখানে নির্দিষ্ট একটা সময় কাজ করার পরও ইনকাম করা যায় এক্ষেত্রে একটিভ ইনকাম করার জন্য আপনার যদি নির্দিষ্ট একটা বিষয়ে যথেষ্ট পরিমাণ অভিজ্ঞতা না থাকে তাহলে আপনি এখানে আয় করতে পারবেন না কিন্তু প্রেমের ক্ষেত্রে আপনি কাজ করার সময় ওই বিষয়ের উপর দক্ষতা অর্জন করতে পারবে বর্তমানে এবং একটি ইনকামের মধ্যে প্যাসিভ ইনকাম জনপ্রিয়তা দিন দিন বাড়ছে কেননা এখানে একটা সময় কাজ করার পর পেমেন্ট পাওয়া যায় আমি এখন কাজ করলাম কিছুক্ষণ আমার ভালো লাগতেছে না আমি কাজ করলাম নাকি তখন আমার পাশে থাকে এই কারণে দিন দিন জনপ্রিয় হয়ে যাচ্ছে সাজেস্ট করব আপনাদেরকে প্যাসিভ ইনকাম করার জন্য যেহেতু আপনারা যদি ব্লগিং করেন এটাও আপনার একটা ছবি হবে এখন আমি আপনাদেরকে এক্সাম্পল আমি আপনাদেরকে বুঝাতে চেয়েছি আমি আপনাদেরকে এটা বোঝাতে চেয়েছি যে সম্পর্কে জানলে কিভাবে করবেন এবং নিশ্চিত করার ক্ষেত্রে কি কি বিষয় মাথায় রাখবেন তারপর কতগুলি ক্যাটাগরি ক্যাটাগরি সিলেক্ট করলাম এবং সম্পর্কে বিস্তারিত ধারণা পেলাম যেগুলো আছে সেগুলো করতে হবে এবং সেগুলো সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে হবে আপনি যদি সেগুলো সম্পর্কে বিস্তারিত জ্ঞান অর্জন করতে না পারেন সে ক্ষেত্রে আপনি এগুলো সম্পর্কে লিখতে পারবেন না এটাই হচ্ছে আমাদের শুরু করার পরিকল্পনা নিয়ে সম্পূর্ণ টিউটোরিয়াল

আশা করি বন্ধুরা বিসনেস সম্পর্কে আপনাদের ধারণা হয়ে গেছে। আপনাদের বন্ধুদের সাথে সিয়ার করতে বুলবেন আজকে এই পর্যন্ত।

Post a comment

0 Comments